আজ ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

প্রেমিকাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ধর্ষণ করেন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি

নরসিংদীর রায়পুরায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে (১৮) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার এ ঘটনায় ভুক্তভোগী তরুণী বাদী হয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল হক চৌধুরী শাকিলসহ (২৭) তার এক সহযোগীর বিরুদ্ধে রায়পুরা থানায় মামলা করেছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় উপজেলার শ্রীরামপুর রেলগেইট এলাকার রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু অডিটোরিয়াম হলের একটি কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী তরুণী উপজেলারর অলিপুরা ইউনিয়নের নবীয়াবাদ এলাকার বাসিন্দা ও নরসিংদী টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

মামলার এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত শাকিল রায়পুরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল হক চৌধুরীর ছেলে। তিনি রায়পুরা পৌর এলাকার শ্রীরামপুর উত্তরপাড়ার বাসিন্দা। গত ছয় মাস পূর্বে ওই তরুণীর সঙ্গে শাকিলের পরিচয় হয়। তারপর দুই জনের মধ্যে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে গতকাল বিকেলে ওই তরুণীকে বিয়ের কথা বলে রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু অডিটোরিয়ামে ডেকে আনা হয়। তারপর কাজী ডেকে বিয়ে করার কথা বলে রাত না হওয়া পর্যন্ত ভবনের কেয়ারটেকার সুমনের রুমে ওই তরুণীকে বসিয়ে রাখে শাকিল। পরে রাতে স্পিড ক্যানে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খাইয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করেন। ওই তরুণী বাঁচার জন্য চিৎকার দিলে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে রুমে আটক করে রাখে। তারপর ঘটনা জানাজানি হলে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন শাকিল। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই তরুণীকে উদ্ধার করে থানায় নেয়।

শাকিলের ঘনিষ্ঠজনরা দাবি করে বলেন, ওই রাতে শাকিল রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু অডিটোরিয়ামে যায়নি। তবে এ ব্যাপারে রায়পুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুল হক চৌধুরী শাকিলের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করে বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক দেব দুলাল দে বলেন, এ ঘটনায় ছাত্রলীগ সভাপতি ও ভবনের কেয়ারটেকারকে আসামি করে ভুক্তভোগী তরুণী মামলা করেছেন। শুক্রবার সকালে ওই তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Facebook Pagelike Widget